মোমিনুল হক, নানিয়ারচর

চাঁদাবাজি ও রাষ্ট্রবিরোধী কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে নানিয়াচরের অস্থায়ী সেনা ক্যাম্প স্থাপন নিয়ে অপপ্রচার। রুখতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মিথ্যে প্রোপাগান্ডা ছড়াচ্ছে বিচ্ছিন্নতাবাদী উপজাতি সন্ত্রাসী সংগঠন ইউপিডিএফ।
ইউপিডিএফের মুখপাত্র Chtnews নামের তথাকথিত নিবন্ধনবিহীন ভূইফোড় নিউজ পোর্টালটি গত ২২ শে জানুয়ারী এই মর্মে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে যে, নান্যাচরে এক ব্যক্তির জায়গা দখল করে সেনাবাহিনী ক্যাম্প স্থাপন করছে।
বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জানতে পেরে আসল রহস্য উন্মোচন করার জন্য আজ শনিবার নানিয়াচর সরজমিন ঘুরেছি এবং স্থানীয় উপজাতি বাঙালি উভয় বাসিন্দাদের সাথে কথা বলেছি।
নানিয়াচর ঘুরে এসে বাস্তবতার নিরিখে বলতে গেলে ক্যাম্প স্থাপনের বিষয়টি সত্য কিন্তু জায়গা দখলের বিষয়টি সম্পূর্ণ মিথ্যে বানোয়াট এবং উদ্দেশ্য প্রণোদিত।

আসল রহস্য হচ্ছে রাঙামাটি জেলার নানিয়াচর হচ্ছে উপজাতি সন্ত্রাসী সংগঠন ইউপিডিএফের নিরাপদ আবাসন। অনেক বছর থেকে নানিয়াচরে ইউপিডিএফ ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে এ জনপদে।
তাদের কথার বাহিরে যদি কেউ যাওয়ার চেষ্টা করে তাকে দুনিয়া থেকে বিদায় হতে হয়!! হোক সে সাধারণ মানুষ কিংবা জনপ্রতিনিধি।
নানিয়াচরে উপজাতি সন্ত্রাসী সংগঠন ইউপিডিএফের লাগামহীন চাঁদাবাজি, খুন, গুম, অপহরণ এবং নারী নির্যাতনের ভয়াবহতায় সাধারণ মানুষ যখন অতিষ্ঠ তখন জনগণের পক্ষ থেকে দাবি উঠে নানিয়াচরের ভীতিকর স্থানগুলোতে সেনা ক্যাম্প স্থাপন করা।

বিষেশ করে নানিয়াচরের উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাডঃ শক্তিমান চাকমা সহ ৬ জনকে প্রকাশ্য দিবালোকে ইউপিডিএফ সন্ত্রাসীদের যখন ব্রাশ ফায়ার করে হত্যা করে তখন জনগণের পক্ষ থেকে সেনা ক্যাম্প স্থাপনের বিষয়টি আরো জোড়ালো হয়।

জনগণের দাবির যৌক্তিকতা বিবেচনা করে জনগণের জানমালের হেফাজত এবং স্বাভাবিক মৃত্যুর গ্যারান্টি নিশ্চিত করতে নানিয়াচরের অস্থায়ী সেনা ক্যাম্প স্থাপনের সিদ্ধান্ত নেয় সরকার।
তারই ধারাবাহিকতার অংশ হিসেবে স্থানীয় এক উপজাতির কাছ থেকে চাষ অনুপযোগী অনাবাদী একটি জমি লিজ নেয় সেনাবাহিনী।
জমিটির নির্ভরযোগ্য কোন দলিল না থাকলেও প্রথাগত নিয়মে মালিক দাবি করা ব্যক্তি হতে লিজ নেয়া হয়।
অনাবাদি চাষ অনুপযোগী জমিটি লিজ দিতে পেরে জমির মালিক খুবই খুশি হয়েছেন।

সেনা ক্যাম্প স্থাপনের বিষয়ে সরকারের মানবিক সিদ্ধান্তকে জনগণ সাধুবাদ জানালেও ইউপিডিএফ সন্ত্রাসীরা ভীত সন্ত্রস্ত হয়ে যাচ্ছে। তাই তাদের পরিচালিত ভূইফোড় নিউজ পোর্টালের মাধ্যমে সেনাবাহিনী এবং সরকারের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালিয়ে সেনাবাহিনীর ভাবমূর্তি নষ্ট করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে।

বিঃ দ্রঃ ছবির দিকে খেয়াল করলে দেখতে পাবেন জমির মালিক অত্যন্ত আনন্দিত চিত্তে সেনাবাহিনীকে জমি লিজ দিচ্ছে।

By admin

মতামত

x