||রকিবুল ইসলাম, খাগড়াছড়ি||

১৩ নভেম্বর ২০২০ খ্রিঃ

মন্তব্য করার ভাষা হারিয়ে ফেলছি- কি নির্লজ্জ মিথ্যাচার! কতটা বিবেকহীন হলে বেদে সম্প্রদায়কে দখলদার হিসেবে প্রোপাগান্ডা করতে পারে পার্বত্য সন্ত্রাসী গোষ্ঠী! আমরা সারাদেশে প্রায়শই দেখি বেদে সম্প্রদায়ের মানুষেরা দেশের উত্তর প্রান্ত থেকে দক্ষিণ প্রান্ত, এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্ত গিয়ে জীবিকার তাগিদে ছোট ছোট তাবু গেড়ে কিছুদিন থেকে আবার ফিরে যায় অন্য প্রান্তে। যাযাবরের মতো তাদের এই জীবন৷ গতকাল ১২ নভেম্বর সন্ধ্যায় বেদে সম্প্রদায়ের কয়েকজন পার্বত্য জেলা খাগড়াছড়ি আগমণ করে খাগড়াছড়ি জিরো মাইল নামক স্থানে অবস্থান করে। জীবিকার তাগিদে কিছুদিনের জন্য খাগড়াছড়ি শহরে তাদের আগমণ। তারা পূ্র্বেও খাগড়াছড়ি সহ পার্বত্যাঞ্চলের বিভিন্ন জায়গাতে এসেছিলেন। কিছু অর্থ উপার্জন হওয়ার পরে আবার ফিরে গেছে দেশের অন্য প্রান্তে। বেদে সম্প্রদায়ের জীবনযাপন বেদনাদায়ক। না আছে তাদের বসতভিটা, না আছে তাঁদের বেছে থাকার শেষ অবলম্বন! এভাবেই যাযাবরদের মতো তাদের জীবন আর বেছে থাকার লড়াই। তারা পার্বত্য খাগড়াছড়ি ভূমি দখলদার হিসেবে আসেনি। অথচ তাদের ভূমি দখলদার ও অনুপ্রবেশকারী সেটেলার বাংগালী আখ্যায়িত করে সন্ত্রাসী গোষ্ঠী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রোপাগান্ডা করছে। কতটা অমানুষ ও বিকৃত মস্তিষ্কের হলে এই ধরনের জঘন্যতম মিথ্যাচারে আশ্রয় নিয়ে বেদে সম্প্রদায়কে দখলদার হিসেবে আখ্যায়িত করতে পারে!

বাস্তবতার নিরিখে বলতে গেলে পার্বত্য চট্টগ্রামের প্রতিটি বিষয়ে সন্ত্রাসী ও তাদের দোসররা অনেক কাল্পনিক মিথ্যা কুৎসা রটিয়ে দেশের সমতলের মানুষের সহানুভূতি পেতে অপচেষ্টা করে!

By admin

মতামত

x