Home / উপজেলা / বাঘাইছড়িতে জেলা পরিষদের সদস্য প্রিয়নন্দ চাকমা থেকে জেএসএস সন্তু গ্রুপের চাঁদা দাবি!

বাঘাইছড়িতে জেলা পরিষদের সদস্য প্রিয়নন্দ চাকমা থেকে জেএসএস সন্তু গ্রুপের চাঁদা দাবি!

||নিজেস্ব প্রতিনিধি||

পার্বত্য রাঙামাটি জেলা পরিষদের সদস্য ও বাঘাইছড়ি উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি প্রিয়নন্দ চাকমাকে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (জেএসএস) সন্তু লারমা গ্রুপের কমান্ডার পরিচয়ে মুঠো ফোনে চাঁদা চেয়ে হুমকি দিয়েছে!! নির্ধারিত সময়ে চাঁদা পরিশোধ না করলে হত্যার হুমকিও দেয়া হয়। তাই প্রিয়নন্দ চাকমার জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে বাঘাইছড়ি থানায় একটি সাধারণ ডাইরি (জিডি) করেছেন উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক নেতা সঞ্জয় ধর।

গতকাল (বৃহস্পতিবার) ১লা এপ্রিল রাত ৮টায় সাধারণ ডাইরি করেন বলে নিশ্চিত করে বাঘাইছড়ি থানার অফিসার্স ইনচার্জ মোঃ আনোয়ার হোসেন খান বলেন, ইতোমধ্যে বাঘাইছড়ি থানার এসআই রানা বড়ুয়াকে বিষয়টি তদন্তের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

পার্বত্য রাঙামাটি জেলা পরিষদ সদস্য ও বাঘাইছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি প্রিয়নন্দ চাকমা চাঁদা দাবীর বিষয়টি শিকার করে বলেন, এটা খুবই দুঃখ জনক, এটি আমাদের চাকমাদের অবক্ষয়, আমার আশপাশের কেও এমনটি করতে পারে।

ছাত্রলীগ নেতা সঞ্জয় ধরের সাধারণ ডাইরি সূত্রে জানা যায়, গতকাল ১লা এপ্রিল বৃহস্পতিবার দুপুর পনে ১ টায় ০১৮১০২৪৭৩৩৮/০১৮২৩৬১৪৫৭৩ নাম্বার থেকে (জেএসএস) সন্তু লারমা দলের কমান্ডার পরিচয়ে প্রিয়নন্দ চাকমার ব্যক্তিগত মোবাইল নাম্বারে ফোন করে এই চাঁদা দাবি ও হত্যার হুমকি দেয় জেএসএসের লোক। এরপর থেকেই প্রিয়নন্দ চাকমা নিরাপত্তা হীনতায় ভুগছেন। বিষয়টি দলীয় নেতাকর্মীদের জানালে বাঘাইছড়ি উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক নেতা সঞ্জয় ধর থানায় উপস্থিত হয়ে এই সাধারণ ডাইরি (জিডি) করেন।

পার্বত্য চট্টগ্রামের উপজাতি সন্ত্রাসীদের হাতে শুধু বাঙ্গালিরা চাঁদাবাজির শিকার হয়না। সবচেয়ে বেশি চাঁদাবাজির শিকার হয় উপজাতিরা। প্রিয়নন্দ চাকমাকে চাঁদার জন্য হত্যার হুমকি তারই জলন্ত প্রমাণ।

মতামত

x