নিশান বড়ুয়া, বাঘাইছড়ি

বাঘাইছড়িতে বাঙালি বৃদ্ধার উপর হামলার পর আরো দুই বাঙালিকে বেধড়ক মারধর করে গাড়ি ভাংচুর করে উপজাতি সন্ত্রাসীরা।

সন্ত্রাসীদের হামলায় আহত বাঙালি আমতলী ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতি রুবেল আলমের পিতা মোঃ আব্দুর রব মিয়া। জানা যায়, বাঘাইছড়ি সারোয়াতলী ৭ নং ওয়ার্ডে চাঁদা না দেওয়াই রোজাদার বৃদ্ধা আব্দুর বর মিয়ার উপর হামলা করে কার্বারীর পুত্র কালাছোফা চাকমা, ভেঙ্গছোফা চাকমা সহ অজ্ঞাত বেশ কয়েক জন উপজাতি উ শৃঙ্খলা যুবক। অদ্য শনিবার ২৪ এপ্রিল ২০২১ খ্রিঃ ৩ ঘটিকার সময় হামলা করে। বাঙালি আব্দুর রব মিয়া নিজের জায়গাতে গরু চরাতে গেলে কতিপয় উপজাতি উশৃংখল যুবকরা হামলা করে চাঁদার জন্য। আহত আব্দুর বর মিয়া বর্তমানে বাঘাইছড়ি হাসপাতালে ভর্তি আছেন।

বাঙালির উপর হামলার ঘটনা দামাচাপা দিতে এরপর উপজাতি সন্ত্রাসীরা গুজব রটিয়ে দেয় যে, বাঙালিরা হামলা চালাচ্ছে উপজাতিদের উপর! এমন গুজব রটিয়ে দিয়ে সন্ধ্যা ৬ টার সময় আরো দুই বাঙালি মাছ ব্যাবসায়িকে মারধর করে মোটরসাইকেল ভাংচুর করেছে আমতলী থেকে আসার পথে সিজুগ রাঙা পাহাড় এলাকায়।

Kahen Babu (কহেন চাকমা) নামক ফেসবুক আইডি থেকে ফেসবুকে সরাসরি লাইভ ভিডিও ছেড়ে বাঙালির উপর হামলা করার জন্য উপজাতীয় সন্ত্রাসীদের দুই শতাধিক কতিপয় যুবক লাঠিসোঁটা, অস্ত্রশস্ত্র ও তীর-ধনুক নিয়ে অবস্থান নেয়। দা-ছুরি নিয়ে উপজাতি কতিপয় যুবক ফেসবুক লাইভে বলতে থাকে বাঙালীদের কেটে রক্তের বন্যা বয়ে দিবেন।

বাঙালী বিদ্বেষী মনোভাব ফুটিয়ে তুলে ভিডিওতে। এমন উগ্র মনোভাবে উস্কানিমূলক কথাবার্তা ও হুমকি দেওয়ার ভিডিও দেখতে থাকা মানুষ ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, প্রশাসন নির্বিকার থাকার বিষয়টি দুঃখজনক। কীভাবে লাঠিসোঁটা, অস্ত্রশস্ত্র ও তীর-ধনুক নিয়ে বাঙালীদের হত্যা করার হুমকি দিচ্ছে সন্ত্রাসীরা! প্রশাসন কি করে? প্রশাসন এই সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করছে না কেন? এখানে লাইভ ভিডিওতে হামলাকারী ও লাঠিসোঁটা, অস্ত্রশস্ত্র থাকা সন্ত্রাসীদের মুখমন্ডল স্পষ্টভাবে দেখা যাচ্ছে। তবুও কি প্রশাসন নীরব থাকবে? পার্বত্য চট্টগ্রামে এসব কী হচ্ছে?
ভিডিও লাইভে বাঙালীদের হুমকি দেওয়ার পর বিভিন্ন পেশাজীবীর মানুষ এধরণের উগ্রতা ও সন্ত্রাসী কার্যক্রমের তীব্র নিন্দা জানিয়ে সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার দাবি করেন।

বাঙালীদের উপর নৃশংস হামলার প্রতিবাদে স্থানীয়রা তীব্র নিন্দা জানিয়েছে। এমন নৃশংস হামলার সাথে জড়িত উপজাতি সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনার জোর দাবি জানিয়েছে। বাঙালির উপর হামলার ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা তৈরি হয়েছে। বাঘাইছড়ি সহ সমগ্র পার্বত্য চট্টগ্রামে বাঙালিদের উপর একের পর এক উপজাতি সন্ত্রাসী কর্তৃক হামলা হচ্ছে। অথচ প্রশাসন নির্বিকার! প্রশাসনের উচিত দ্রুত হামলাকারীদের আটক করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া।

উপজাতি ইউপিডিএফ সমর্থিত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলো বাঙালির বিরুদ্ধে গুজব রটিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছে। কয়েকশত আইডি থেকে গুজব রটিয়ে দিচ্ছে। #Chtnews তন্মধ্যে অন্যতম। #chtnewsএর পোস্ট লিংক… https://m.facebook.com/story.php?story_fbid=2838079766430061&id=1374244922813560 সাম্প্রদায়িক দাঙ্গাহাঙ্গামা সৃষ্টি করে ফায়দা লুটে নেওয়ার জন্য ইউপিডিএফ তৎপর। উস্কানিমূলক তথ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রদানকারী ইউপিডিএফ সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জোর দাবি জানায়।

বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক আছে, এবং ঘটনারস্থলে বিজিবি আবস্থান করেছে।

সংযুক্তি-
১. আহত বাঙালীদের ছবি
২. উপজাতি সন্ত্রাসীদের ফেসবুক লাইভের ভিডিও
৩. ফেসবুক লাইভ ভিডিও লিংক… https://m.facebook.com/story.php?story_fbid=464099421347073&id=100032410577189
৪. লাইভ শেয়ার করা আইডির স্কিনশট

By admin

মতামত

x