Home / রাঙামাটি / রাঙামাটি কাপ্তাই থেকে জেএসএস সন্ত্রাসীদের বাঙালি সোর্স আটক।

রাঙামাটি কাপ্তাই থেকে জেএসএস সন্ত্রাসীদের বাঙালি সোর্স আটক।

হান্নান সরকার, কাপ্তাই রাঙামাটি।

স্পেশাল অপারেশনে নিয়োজিত সেনা ও বিজিবি’র যৌথ টহল দল কর্তৃক সন্দেহভাজন জেএসএস সোর্স বাঙ্গালী দালালকে আটক করে পুলিশে দেওয়া হয় বলে জানা যায়।

সূত্রে জানা যায় গতমাসের ২৯ জুন ২০২১ খ্রিস্টাব্দে আনুমানিক ৮ ঘটিকার সময় স্পেশাল অপারেশনে নিয়োজিত কাপ্তাই জোনের রাইখালী টিওবি ক্যাম্পের ক্যাম্প কমান্ডার সিনিঃ ওয়াঃ অফিঃ এর নেতৃত্বে সেনা ও বিজিবি যৌথ একটি বি টাইপ দল ক্যাম্পের আওতাধীন ডলুছড়ি পাড়া থেকে সন্দেহভাজন হিসেবে মোহাম্মদ শাহ আলম (৩১) কে আটক করে। সে রাইখালীবাজার ডলুছড়ি পাড়ার বাসিন্দা মোহাম্মদ আব্দুল জব্বারের ছেলে।

আজ ১ জুলাই ২০২১ খ্রিস্টাব্দে কাপ্তাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আটক মোহাম্মদ শাহ আলমের স্বাস্থ্য পরীক্ষার পর আনুমানিক বিকাল সাড়ে ৪টার সময় চন্দ্রঘোনা থানায় হস্তান্তর করেন। আটক ব্যাক্তি বর্তমানে চন্দ্রঘোনা থানা পুলিশ হেফাজতে আছে। চন্দ্রঘোনা থানার পুলিশ আটক ব্যক্তিকে পূর্বের মামলার আসামি হিসেবে রাঙ্গামাটি কোর্ট হাজতের উদ্দেশ্যে প্রেরণ করবে বলে জানা যায়।

আটক মোহাম্মদ শাহ আলমকে থানায় হস্তান্তরের সময় রাইখালী টিওবি ক্যাম্পের স্বাক্ষরিত আবেদনে উল্লেখ করেন যে, জেএসএস এর সদস্য ও সংবাদদাতা হিসেবে উক্ত মোহাম্মদ শাহ আলম-কে আজ ১ জুলাই ২০২১ খ্রিস্টাব্দে আনুমানিক সাড়ে ৩ ঘটিকার সময় ডলুছড়ি পাড়া স্কুল মাঠ থেকে আটক করেন। আরো উল্লেখ করা হয়েছে যে, চন্দ্রঘোনা থানার মামলা নম্বর: ০১, তারিখ: ০৫ এপ্রিল ২০২০ ও ধারা-৪৪৮/৩০২/৩৪ পেনালকোড-এর ঘটনার সহিত জড়িত থাকতে পারে এই মর্মে সন্দেহ করা হইতেছে।

সূত্রে জানা যায়, গতমাসের ২৮ জুন ২০২১ খ্রিস্টাব্দে আনুমানিক ৫ ঘটিকার সময় টহল কমান্ডার কর্তৃক টহল দলের শ্রমিক হিসেবে থাকার নির্দেশ দিয়ে স্বাভাবিক নিয়মে রেখেছিল। কিন্তু গত ২৯ জুন ২০২১ খিস্টাব্দর থেকে তাকে আসামী হিসেবে রশি দিয়ে হাত বাঁধা অবস্থায় উক্ত ব্যক্তিকে টহল দলের সাথে রেখেছিল বলে জানা যায়। ধারনা করা হয় উক্ত ব্যক্তির মোবাইল ফোনে সন্ত্রাসীদের মোবাইল ফোন নাম্বার থাকার কারণে সন্দেহ বশত তাকে আটক করা হয়েছে বলে জানা যায়।

মতামত

x