আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ বলেছেন, বিএনপির দাবি অনুযায়ী জাতীয় নির্বাচনের তফসিলের আগে খালেদা জিয়ার মুক্তি সম্ভব নয়, তফসিলের পরেও না।

আজ বুধবার সকালে রাজধানীর গুলিস্তানে বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ের খদ্দর বাজার শপিং কমপ্লেক্সের সামনে প্রচারপত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে হানিফ এ কথা বলেন।

বিএনপি গত ৩০ সেপ্টেম্বর সাত দফা দাবি ঘোষণা করে। সেখানে একাদশ জাতীয় নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার আগে দলের চেয়ারপারসন কারাবন্দী খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবি ছিল। সে প্রসঙ্গে হানিফ বলেন, ‘খালেদা জিয়ার মুক্তির দুটি পথ খোলা আছে। প্রথমত, আদালতের মাধ্যমে আইনি প্রক্রিয়ায় এবং দ্বিতীয়ত, নিজের অপরাধ স্বীকার করে রাষ্ট্রপতির কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করা। এর বাইরে কোনো পথ নেই।’ হানিফ বিএনপির এই দাবিকে অসাংবিধানিক মন্তব্য করেন।

দাবি মানা না হলে বিএনপি নির্বাচনে অংশ নেবে না—বিএনপির কোনো কোনো নেতার কথায় এমন আভাস পাওয়ার কথা জানিয়ে হানিফ বলেন, ‘এ ধরনের হুমকি-ধমকি আওয়ামী লীগকে দিয়ে লাভ নেই।’ তিনি বিএনপিকে জনগণের সমর্থন যাচাই করতে মাঠে নেমে নির্বাচনের প্রস্তুতি নিতে আহ্বান জানান।

আওয়ামী লীগের এই যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আরও বলেন, দেশে সুবিধাবাদী কিছু নেতা আছেন, যাঁরা কখনো নির্বাচনে জিততে পারে না। কিন্তু নির্বাচন এলে নানামুখী তৎপরতা শুরু করেন।

জাতীয় নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের নেতারা বিভিন্ন জায়গায় জনসংযোগ ও প্রচারপত্র বিলির কাজ শুরু করেছেন। এরই অংশ হিসেবে আওয়ামী লীগের ঢাকা মহানগর দক্ষিণের ২০ নম্বর ওয়ার্ডের আয়োজনে আজ মাহবুব উল আলম হানিফ গুলিস্তান এলাকায় জনসংযোগ করেন।

জনসংযোগ অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, ২০১৪ সালের মতো পুনরায় ষড়যন্ত্র চলছে। কিন্তু দেশ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এগিয়ে যাবে। তিনি সবাইকে শেখ হাসিনার পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানান। এ অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামীম ও আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশবিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন।

By admin

মতামত

x