আমাদের দেশের তথাকথিত বুদ্ধিজীবিরা একটিবারও প্রশ্ন করে না পার্বত্য চুক্তির পরে কেন পাহাড়ে অবৈধ অস্ত্রের ঝনঝনানি? তাদের শুধু বলতে শুনা যায়- পার্বত্য চুক্তির পরে কেন পাহাড়ে সেনাবাহিনীর অবস্থান। এই হচ্ছে আমাদের দেশের বুদ্ধিজীবিদের জ্ঞান ও বিবেক! এজন্য বললাম যে, আমাদের দেশের বুদ্ধিজীবি ও সুশীলরা রাস্ট্রের জন্য মারাত্মক হুমকি। এমন বুদ্ধিজীবি যে দেশে থাকবে সে দেশ অচিরেই দ্বিখণ্ডিত হবে।

একটি সহজ বিষয়-পার্বত্য চুক্তির মৌলিক শর্ত লঙ্ঘন করে ইউপিডিএফ-জেএসএস যদি পাহাড়ে অবৈধ অস্ত্র নিয়ে বিদ্যমান থাকতে পারে, তাহলে দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষায় সেনাবাহিনী পাহাড়ে বিদ্যমান থাকা রাস্ট্রীয় দায়িত্ব। এই সহজ বিষয়টি বুঝতে চায় না তথাকথিত বুদ্ধিজীবি ও সুশীল মহলটি।

যেসমস্ত বুদ্ধিজীবি ও সুশীল মহল পাহাড়ে সেনাবাহিনী কেন এবিষয়ে সবসময় তৎপর, এবং চুলচেরা বিশ্লেষণ করে তাদের বলতে চায়- সেনাবাহিনী সম্পর্কে মন্তব্য করার আগে পাহাড়ে অবৈধ অস্ত্রধারীরা এখনো সক্রিয় কেন সেবিষয়ে উত্তর দিতে৷ যদি সেবিষয়ে উত্তর দিতে না পারে, তাহলে বলবো তোমাদের মত জ্ঞানপাপী বুদ্ধিজীবি চুপ থাকায় শ্রেয়, কারণ তোমরা দেশ ও জাতির জন্য বিপদজনক, এবং অভিশপ্ত৷

By admin

মতামত

x