সেনাবাহিনী ও সর্বস্তরের জনগনের সর্বাত্মক প্রচেষ্টায় কোন হতাহত ব্যাতীত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে।

গত ০১ ডিসেম্বর ২০২১ খ্রিস্টাব্দে ভোর রাত আনুমানিক ৩ টা ৪০ মিনিটে সাজকে স্থানীয় হেডম্যানের বাসার পিছনে অবকাশ রিসোর্টের দ্বিতীয় তলার সম্ভাব্য ২০২ নং রুম হতে আগুনের সুত্রপাত হয়। প্রাথমিক অনুসন্ধান ও জিজ্ঞেসাবাদে বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে উক্ত আগুনের উৎপত্তি হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

উল্লেখিত রুম হতে উতপন্ন আগুনে অবকাশ রিসোর্ট (এবং ল্যাম্বু পোষ্ট ক্যাফের নিচতলায়), মারুতি রেস্টুরেন্ট, সাজেক ইকো ভ্যালি রিসোর্ট, মেঘসুট রিসোর্টে সহ জাকারিয়া লুসাই (হেডম্যানের বড় ছেলে) এর বাড়ি সম্পুর্ন আগুনে পুড়ে যায়। সাজেক ভ্যালিতে উপস্থিত সাজেক সেনা পোস্টের তাতক্ষনিক প্রতিক্রিয়া ও স্থানীয় রিসোর্ট মালিক সমিতি, স্থানীয় প্রশাসন এবং সর্বপরি সর্বস্তরের মানূষদের যৌথ প্রচেষ্টা ও সহযোগিতায় সকল পর্যটকগনদেরকে কোন রকম গুরুতর হতাহতের ঘটনা ব্যাতিরেকে আগুনকে (আনুমানিক ৫টা ২০মিনিটে) নিয়ন্ত্রনে নিয়ে আসে। সাজেক ভ্যালি থেকে পানির উৎস আনুমানিক ৪ থেকে ৪.৫ কিঃ মিঃ নিচে পাহাড়ের পাদদেশে অবস্থিত হওয়ায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে যথেষ্ট বেগ পেতে হয়। পরবর্তীতে ৫ টা ৪০মিনিটে বাঘাইহাট থেকে একটি বিশেষ টহলদলের তত্বাবধানে দীঘিনালা ফায়ার সার্ভিস এর একটি ইউনিট (৭ জন) ঘটনা স্থলে আগমন করে এবং আনুমানিক দুপুর ২ টা ১৫ মিনিটে পানি দিয়ে সম্পুর্নভাবে আগুন নিয়ন্ত্রনে নিয়ে আসে।

আগুনে পুড়ে যাওয়া স্থাপনা সমূহে ১১ জন ষ্টাফ ও ৪৫ জন পর্যটক সহ সর্বমোট ৫৬ জন রাত্রিযাপন করছিলেন। তাদের মধ্যে একজন মধ্যবয়স্ক মহিলা আগুনের ভয়ে চারতলা থেকে লাফিয়ে নামতে গেলে পায়ে ব্যাথা পান। পরবর্তীতে সেনাবাহিনীর তত্বাবধানে পরিচালিত সাজেক পর্যটক চিকিৎসা দল উক্ত মহিলা সহ অন্যান্য উদ্ধারকারীদলকে চিকিৎসা প্রদান করে।

By admin

মতামত

x