রুহুল আমিন তৌহিন, রাঙ্গাাামাটি

২৮ ডিসেম্বর ২০১৬ খ্রিস্টাব্দে পার্বত্য চট্টগ্রামের একটি বিচ্ছিন্নতাবাদী সন্ত্রাসী গ্রুপ কর্তৃক হুমকি দেওয়া হয় ইউএনও-কে। তোমার পরিবার নিয়ে সড়ক ও নদী পথে নানিয়ারচর আসবে না। যদি ভুল করেও আসো তাহলে এ্যাটাক করবো। শুধু মাত্র একটি বুলেট খরচ করবো তোমার জন্য, যেকোনো সময়। পারলে বদলী হয়ে চলে যাও। নাহলে তোমার দু’টি বাচ্চা, অথবা তুমি নিজে না হয় তোমার বউকে আমরা দুনিয়া থেকে বদলী করবো!!!

বাংলাদেশ সরকার বদলী করে খাগড়াছড়ি, রাঙামাটি ও বান্দরবান আর আমরা বদলী করি পৃথিবী থেকে। তোমাকে চিরতরে বদলী করে দেবো পৃথিবী থেকে।

পার্বত্য রাঙামাটি জেলার নানিয়ারচর উপজেলার নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) নুরুজ্জামানকে এসএমএস এর মাধ্যমে এভাবেই প্রাণনাশের হুমকি দিয়েছে উপজাতি সন্ত্রাসীরা।

উল্লেখ্য যে, ২০১৬ সালের ২৮ ডিসেম্বর রোববার কানা মানবাধিকার কমিশনের জ্ঞানপাপী চেয়ারম্যান ড. মিজানুর রহমানের নানিয়ারচরের বগাছড়ির ১৪ মাইল এলাকা সফরকালে উপজাতি বিচ্ছিন্নতাবাদী সন্ত্রাসীদের নারী একটি গ্রুপ উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) নুরুজ্জামানের উপর হামলা করেন।

এই হামলার নেতৃত্ব দেন উপজাতি বিচ্ছিন্নতাবাদী সন্ত্রাসীদের নারী নেত্রী ও ইউপি মেম্বার কাজলী ত্রিপুরা ও তার সঙ্গী অপর কয়েকজন উপজাতি নারী। এই ঘটনায় ইউএনও বাদি হয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন বলে নিশ্চিত করেছেন নানিয়ারচর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. রশিদ চৌধুরী। তিনি জানান, থানার এসআই শাহজাহান এই ব্যাপারটি তদন্ত করছে। কিন্তু কাজের কাজ পুলিশ কিছু করেনি। কোনপ্রকার ব্যবস্থা নেয়নি সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে।

নানিয়ারচর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) নুরুজ্জামান এসএমএস এর মাধ্যমে তাকে হুমকি দেয়ার বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, আমি প্রজাতন্ত্রের চাকরি করি আমাকে হুমকি দেওয়াতে আমি ভিতু নয়। প্রয়োজনে নিজের জান-প্রাণ দিয়ে হলেও এখানে চাকরি করে যাবো।

পরবর্তীতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) বাধ্য হয়ে নিজেরও পরিবারের জীবন বাঁচাতে বাধ্যতামূলকভাবে বদলী হয়ে চলে যায়।

পার্বত্য চট্টগ্রাম যেখানে একজন সরকারী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও তার পরিবার কে উপজাতি দেশদ্রোহী সন্ত্রাসী কর্তৃক মারাত্মকভাবে হত্যার হুমকি দেয়! এমন ভয়ংকর পরিস্থিতিতে সাধারণ পার্বত্য জনপদ কতটুকু নিরাপদ? সবচেয়ে বিবেচ্য বিষয় হচ্ছে কতটুকু শক্তিশালী হয়ে থাকলে সন্ত্রাসীরা এমন হুমকি দিতে পারে?

By admin

মতামত

x