গল্প শুনবে গল্প, এক স্বাধীন রাষ্টের পরাধীনতার গল্প,
না না কল্প কাহিনী নয়, এটা বাস্তবতার নির্মম গল্প।
পাহাড়ের বুকে অসহায়, নির্যাতিত বাঙালির গল্প
নিজের দেশে, নিজের ঘরে অবহেলিত হওয়ার গল্প।

শুনেছো তো নাম তার পার্বত্য চট্রগ্রাম
আপন সৌন্দর্য ও মহিমায় তার মধ্যে কর্ণফুলী,কাচালং, চেঙ্গী, মাতামুহুরী,মাইনী নদী বহমান,
খাগড়াছড়ি, রাঙ্গামাটি ও বান্দরবন যাদের প্রাণ
সুযোগ সন্ধানী উপজাতি সন্ত্রাসীরা সেথায় করে অবস্থান।

বাংলার প্রাণ পার্বত্য চট্রগ্রাম প্রাকৃতিক সম্পদে ভরপুর,
তাই উপজাতি সন্ত্রাসবাদীরা বাজায় এখানে মরনবীণার সুর,
জুম্মল্যান্ড করার স্বপ্নে তারা হয়ে আছে বিভোর
তাই পার্বত্য বাসীর জীবনে আসেনা সুখের কোন ভোর।

লাঞ্চিত নির্যাতিত অসহায় প্রতিটা বাঙালি,
উপজাতিরা তাদের করে রেখেছে কাঙালি,
বাঙালির রক্তিম রক্তে খেলে ওরা হোলি
নির্যাতিত বাঙালির কথা কোন জাতি সংঘে বলি!!?

সংখ্যালঘু নৃ-গোষ্ঠী উপজাতির জন্য আইন হয় কতোশত,
কতো এন.জি.ও কতো সংস্থা সেবা দিতে থাকে ব্যস্ত!
সংখ্যালঘু নামদারীদের ষড়যন্ত্র চোখে পরেনা কোন সংঘের!!!
নাকি তারাও চায়, ভাগ হোক এই বঙ্গের?
দেশের সব স্থানে নিরাপদে আছে সকল জনতা,
পার্বত্য চট্টগ্রামে তা অনেক ক্ষেত্রে ভিন্নতা।
নিরাপত্তা দিতে প্রয়োজন যেখানে নিরাপত্তা কর্মী,
তার মধ্যে সেখানে করে চুক্তি নিয়ে গেছে থাকা সব নিরাপত্তা কর্মী!!!

আজব আজব খেলা তোমাদের দেশ নিয়ে কেন এতো?
চুক্তি কথা আসে কেন স্বাধীন রাষ্ট্রের ভিতর এতো!!

সমতা নিতে চায়না ওরা উপজাতি হিংস্র জাতি।
ওদের সাথে কিভাবে করি শান্তি আনতে চুক্তি।

ওরা মানেনা কোন চুক্তি, অকাতরে মারছে আজ আমাদের বীর সেনাদের,!!!

হাজার হাজার বাঙালি হত্যার বিচার এখানে হয় না,
সুশীল সমাজের মাথাগুলো সব শন্তু লারমার কেনা,
হলুদ মিডিয়ার দালালরা করেনা বাঙালির নির্যাতিত রূপ প্রচার।
কাদের ভয়ে চুপ থেকে, মেনে নেয় সব অত্যাচার?

বঙ্গ মাতার খন্ডন বলো রুক্ষবে এবার কারা?
চোখের পর্দাখুলে কখন তাকাবে সুশীলেরা?
নির্যাতিত বাঙালির পাশে কখন দাঁড়াবে যুবসমাজ?
অখন্ডিত বাংলার নিশ্চয়তা দিয়ে, সুখে করবে সবাই বসবাস।

আমি এক নির্যাতিত বাঙ্গালী, পার্বত্যে যার বসবাস।
আমার সব অধিকার কেড়ে নিয়ে, নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হচ্ছে সোনার বাংলাদেশ।

স্বাধীন দেশে সেনা মরে, পার্বত্য তার প্রমাণ।
নির্বিচারে পার পেয়ে, শেষে আরো উৎপলিত হয় সন্ত্রাসীরা।
পাহাড়ে সন্ত্রাসী ধমাতে সেনা দাও আরো আমার।
রাষ্ট্র তোমার কাছে দাবী জানাচ্ছি এটাই।

পাওয়া ছিল যা, পাইনি আমি তা।
চুক্তির ফলে ব্যর্থ, এ পাহাড়ি জনপদ।
সৈন্য তুলে নিয়ে অনিরাপদ হয়ে পড়েছি আমি প্রতি স্থানে।
অবৈধ অস্ত্র আজ উপজাতির হাতে দেখার নেই কেহ!!
নির্বিচারে শত প্রাণ আজ ঘুমন্ত বুলেটের আঘাতে!!
আহ আফসোস!!!
রাষ্ট্র তুমি নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ আজ আমায়।

কাদঁতে কাদঁতে চোখে নেই পানি, অনিরাপদ সবি।
হে রাষ্ট্র তুমি নিরাপত্তা দিতে, বাহিনী দাও আমায়।
স্বাধীন দেশের বুকে একটু মাথা রেখে ঘুমাতে দাও মোরে।

কত চিত্ত ইতিহাস রচিত হচ্ছে, সন্তু প্রসিতদের কারণে।
রাষ্ট্র কেন ব্যর্থ? বুঝে আসেনা আমাদের মনে!!!

আমি নির্যাতিত, আমায় নিরাপত্তা দাও তুমি।
রাষ্ট্র তুমি ব্যর্থ কেনো!!! কেনো!!! কেনো!!!

By admin

মতামত

x