Home / উপজেলা / উপজাতি সন্ত্রাসীদের হামলা হতে স্বজাতিও রক্ষা নেই, কি নির্মমতা চলে পাহাড়ে!

উপজাতি সন্ত্রাসীদের হামলা হতে স্বজাতিও রক্ষা নেই, কি নির্মমতা চলে পাহাড়ে!

জিহান মোবারক, রাঙামাটি

গত রবিবার ০৩-০১-২০২১ খ্রিঃ দুপুর ৪টার সময় জতিন্দ্র চাকমার উপর এই বর্বরোচিত হামলার ঘটনা ঘটে বলে জানা যায়। আরো জানা যায়, সন্ত্রাসীদের হামলার ভয়ে হাসপাতালে চিকিৎসা নিতেও যেতে পারেননি তিনি।

গত ০৩-০১-২০২০ ইং দুপুর ২ টায় জতিন্দ্র চাকমাকে রিজার্ভ বাজারের উন্নয়ন বোর্ড হতে কাপ্তাইয়ের জীবতলীতে দিনেজ চাকমার নেতৃত্বে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়। পিন্টু চাকমার নেতৃত্বে পরে চোখ বেঁধে তাকে গাছের সাথে লোহার শিকল বেঁধে ৩/৪ জন মিলে নির্যাতন করেন!

অনেকেই মনে করে উপজাতীয় সন্ত্রাসীরা শুধু বাঙ্গালীদের প্রতিপক্ষ! আসলে কি সত্যি তাই? ছবিতে যে ছেলেটিকে দেখতেছেন ক্ষত-বিক্ষত সেও কিন্তু একজন উপজাতি৷ একজন উপজাতি হওয়ার স্বত্বেও সে তার স্বজাতি সন্ত্রাসী কর্তৃক হামলার শিকার হয়েছেন! পার্বত্য চট্টগ্রামে সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর নিকট কে উপজাতি? কে বাঙ্গালী? সেটা বিবেচ্য বিষয় নয়। বিবেচ্য বিষয় হচ্ছে, চাঁদা দেবার মত কার কতটুকু সাধ্য ক্ষমতা আছে আর কার কতটুকু সাধ্য ক্ষমতা নেই সেটাই বিবেচ্য বিষয়। সুতরাং সোমালিয়ার জলদস্যুদের কাছে যেমন কোন ধর্ম-বর্ণ বড় কিছু নয়, তেমনি পার্বত্য চট্টগ্রামের সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর কাছেও জাতপাত বড় কিছু নয়।

জতিন্দ্র চাকমার বাড়ি রাঙামাটি জেলার বরকল উপজেলায়। সে একজন ছাত্রলীগ কর্মী।
উপজাতি সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা তাকে রাঙামাটির রিজার্ভ বাজার এলাকা থেকে ধরে কাপ্তাই জীবতলী নিয়ে যায়।
ওখানে বর্বরোচিত হামলার স্বীকার হন জতিন্দ্র চাকমা। অথচ ক্ষমতাসীন দলের কর্মী হওয়ার পরেও তার গায়ে প্রকাশ্যে দিবালোকে হামলা করার সাহস পায় পার্বত্য চট্টগ্রাম গ্রাস করে চাঁদাবাজি, অপহরণ ও খুন-গুম করা অস্ত্রধারী উপজাতি সন্ত্রাসীরা।

কতটা নির্মমতা আর বর্বরতা চলে পাহাড়ে সেটা সবাই জানলেও ভয়ে প্রকাশ করেনা। পাহাড়ের প্রতিটি প্রান্তে সন্ত্রাসী গোষ্ঠী কর্তৃক সাধারণ উপজাতিরা নির্যাতিত নিপীড়ন ও শোষিত। দুঃখজনক হলেও সত্য যে বাঙালিরা তো নির্যাতিত হলে কিছুটা হলেও প্রকাশ করতে পারে কিন্তু উপজাতিরা কোনকিছু প্রকাশ করতে পারে না প্রাণের ভয়ে! এ বর্বরোচিত ঘটনার পর সবচেয়ে যেটা অবাক ও সাহসীকতার ঘটনা ঘটেছে তা হল, হামলার বিচার চেয়ে জতিন্দ্র চাকমা নিজেই তার ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছেন নির্যাতনের ছবি সহ।

মতামত

x