নিরীহ পাষেন বোমকে কেএনএফ কর্তৃক পাশবিক কায়দায় হত্যা।

0
81

গত ১৮ মার্চ ২০২৩ খ্রিস্টাব্দে ভারতের মিজোরাম প্রদেশের Lawngtlai district (লংতলাই জেলা)-এর অন্তর্ভুক্ত Bungtlang (বুংতলাং)-এ কেএনএফ (কেএনএ)h-এর ক্যাপ্টেন গজপেল বম (২৯) এবং Sanglianzual Bawm (পাসেন বম) (বয়স-২৯) এ দুইজনকে আসাম রাইফুল আটক করে। সাংলিয়ানজোয়াল বম (পাসেন) পীং- বিলথন বম-কে ছেড়ে দিয়ে গজপেল বমকে লংতলাই জেলার কারাগারে পাঠানো হয়। গজপেল বমকে জেলে ঢুকিয়ে দিয়ে পাসেন বম ছেড়ে দেওয়ার কারনে কেএনএফ-এর সদস্যরা তাকে সন্দেহ করে যে, পাসেন বম-এর আসাম রাইফুলদের কাছে ইনফরমেশন বা খবর দেওয়ার কারনে গজপেল বমকে ধরা হয়েছে। সে কারনে মার্চের ১৯ তারিখে বুংতলাং থেকে তাকে ডেকে মংবুহ বম পাড়ার দিকে নিয়ে কেএনএফ-এর সদস্যরা তাকে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়েছে।

গত মার্চ ১০ তারিখে Bungtlang (বুংতলাং) পাড়ার স্কুল ঘরে কেএনএফ-এর Executive Council মিটিং যোগ দেওয়ার জন্য ঠেনজল শহর থেকে মটর-বাইক করে গজপেল বমকে পাসেন বম মংবুহ পাড়ায় নিয়ে গিয়েছিল। এ কেএনএফ-এর মিটিং-এ যারা যোগদান করেছে- তাদের নাম:
নাথান বম, ভানচুংলিয়ান বম, লালজংময় বম, জিংখুমলিয়ান বম, সালেম বম, জিরমিং বম, গসপেল বম, লালএংলিয়ান বম, ভানলালপেক বম, পাজাও বম, নুনসাং বম, রৌনন বম, বমচেও বম এবং এলবার্ট বম।

এ সাংলিয়ানজোয়াল বম (পাসেন)-এর হত্যায় কেএনএফ-এর এক্সজিকিউটিভ মিটিং-এ যোগ দিয়েছে তারা সবাই দায়ী। যারা এ ভাবে পাসেন বমকে নৃশংসভাবে হত্যা করেছে তাদেরকে কঠোরভাবে শাস্তি দেওয়া হোক। ৬/৭ বছর আগে বাংলাদেশে রুমা উপজেলার আরথাহ পাড়ায় বসবাস করত, এ আরথাহ পাড়া প্রথমে মিজোরামের চামদুর প্রজেক্ট বম পাড়ায় বসবাস করে গত ২/১ বছর আগে মিজোরামের ঠেনজল-এ বসবাস করেছে। বিলথন বম-এর এক মাত্র ছেলে। এ পাসেন বম-এর ৭ বছর আগে বিয়ে করে বর্তমানে ৬ বছরের একটি ছেলে আছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here